মানব সম্পদ ডাটাবেইজ

এমআইএস মানব সম্পদ ব্যবস্থাপনার জন্য ৩টি ডাটাবেইজ ব্যবহার করে থাকে। এগুলো হলোঃ পার্সোনাল ডাটা শীট বা পিডিএস; হিউম্যান রিসোর্স ম্যানেজমেন্ট সিসটেম ও ফিল্ড স্টাফ ইনফরমেশন সিসটেম।

এছাড়া স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় ছুটি ব্যবস্থাপনার জন্য একটি ডাটাবেইজ তৈরি করেছে যা পাসোর্নাল ডাটা শীট ডাটাবেইজ থেকে ডাটা নিয়ে থাকে।

পার্সোনাল ডাটাশীটঃ মূলতঃ সরকারী চিকিৎসকগণ এই ডাটাবেইজ নিজেই তৈরি ও হালনাগাদ করে থাকেন। তবে বেসরকারী চিকিৎসক ও সরকারী-বেসরকারী স্বাস্থ্য জনবলের যে কেউ নিজে থেকেই এই ডাটাবেইজে নিজ তথ্য রাখতে পারেন।

হিউম্যান রিসোর্স ম্যানেজমেন্ট সিসটেমঃ এই ডাটাবেইজটি বর্তমানে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অধীন সকল প্রতিষ্ঠানে কর্মরত কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের তথ্য ও উপাত্ত সংরক্ষণের জন্য ব্যবহার করা হয়ে থাকে। প্রতিটি স্বাস্থ্য প্রতিষ্ঠান কর্তৃপক্ষকে এই ডাটাবেইজে তথ্য প্রবেশ করাতে হয় এবং তথ্য হালনাগাদ রাখতে হয়।এই ডাটাবেইজ তৈরি করা হয়েছে মানব সম্পদ ব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত সকল প্রক্রিয়া অন লাইনে সম্পাদনের জন্য। পরিকল্পনা মাফিক এই ডাটাবেইজ স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সকল জনবলের হালনাগাদ তথ্য যে কোন সময়েই দিতে পারবে।

ফিল্ড স্টাফ ইনফরমেশন সিসটেমঃ এই ডাটাবেইজটি তৈরি করা হয়েছে গ্রাম পর্যায়ে সে সব মাঠকর্মী রয়েছে তাদের নাম, পদবী, সংযুক্তি এবং মোবাইল নম্বর সংরক্ষণের জন্য।এখানে কমিউনিটি হেলথ কেয়ার প্রোভাইডার, স্বাস্থ্য সহকারী, সহকারী স্বাস্থ্য পরিদর্শক ও স্বাস্থ্য পরিদর্শকদের তথ্য রয়েছে। পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের কর্মচারীদেরও অনুরোধ করা হয়েছিল তাদের তথ্য এই ডাটাবেইজে দিতে। তাদেরও অনেকেই এখানে তথ্য দিয়েছেন। এই ডাটাবেইজটি তৈরি করা হয়েছে অভিনব পদ্ধতিতে। প্রথমে এসএমএস ভিত্তিক একটি সফটওয়্যার তৈরি করা হয়। এরপর প্রত্যেক উপজেলাকে বলা হয় তাদের স্বাস্থ্য কর্মীদের একত্র করে সবাইকে একই নিয়মে একটি বিশেষ মোবাইল নম্বরে এসএমএস পাঠাতে। এই পদ্ধতিতে সকলের তথ্য নির্দিষ্ট ফরম্যাট অনুযায়ী ডাটাবেইজে জমা হয়। পরে একটি ওয়েব পোর্টালের মাধ্যমে প্রত্যেক উপজেলাকে তাদের স্বাস্থ্য কর্মীদের প্রেরীত তথ্য যাছাই-বাছাই ও সংশোধন করতে বলা হয়। এই হলো এই ডাটাবেইজটির জন্ম কথা। আমাদের কাছে এদের সকলের মোবাইল ফোন নম্বর আছে। আমরা বাল্ক এসএমএস পাঠিয়ে সকলতে দ্রুত একই মেসেজ পাঠাতে পারি।